Топ-100
Back

ⓘ পটিয়া আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়




পটিয়া আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়
                                     

ⓘ পটিয়া আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়

পটিয়া আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় বাংলাদেশের চট্টগ্রাম জেলার একটি মাধ্যমিক স্তরের শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। ১৮৪৫ সালে প্রতিষ্ঠিত এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটিই দীর্ঘদিন ছিলো পুরো দক্ষিণ চট্টগ্রামের একমাত্র শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হিসাবে।

                                     

1. অবস্থান

এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটি চট্টগ্রামের পটিয়া উপজেলা সদরে অবস্থিত। এর উত্তর-পূর্ব দিকে উপমহাদেশের বিশ্ববিখ্যাত ইসলামি বিশ্ববিদ্যালয় আল জামিয়া আল ইসলামিয়া পাটিয়া অবস্থিত।

                                     

2. ইতিহাস

এই বিদ্যালয়টি ১৮৪৫ সালে দুর্গা কিংকর দত্ত কর্তৃক একটি প্রাথমিক বিদ্যালয় হিসাবে প্রথমে পটিয়ার ভূর্ষি গ্রামে প্রতিষ্ঠিত হয়, যা পরবর্তীতে স্থানীয় জমিদার মীর ইয়াহিয়ার আর্থিক সহায়তায় জুনিয়র ইংরেজি বিদ্যালয়ে পরিণত হয়। বিদ্যালয়ের প্রথম প্রধান শিক্ষক ছিলেন দুর্গা কিংকর দত্ত নিজেই। ১৮৫৯ সালে বিদ্যালয়টি কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুমোদন পায়, ফলে এটি উচ্চ ইংরেজি বিদ্যালয়ের পর্যায়ভুক্ত হয় ও ১৮৬৭ সালে সর্বপ্রথম ব্যাচের ছাত্ররা এই বিদ্যালয় থেকে এন্ট্রাস পরীক্ষায় অংশ নেয়। সেই বছর পরীক্ষার্থীদের মধ্যে থেকে মাত্র একজনই পাস করেছিলেন। তিনি ছিলেন সুচক্রদণ্ডী গ্রামের উমাচরণ খাস্তগীর। ১৯-শতাব্দীর পূর্ব পর্যন্ত এই বিদ্যালয়টি সারা দক্ষিণ চট্টগ্রাম ও কক্সবাজারের মধ্যে একমাত্র বিদ্যালয়টি ছিল।

উচ্চ বিদ্যালয়ে উন্নীত হওয়াপর বিদ্যালয়ের প্রথম প্রধান শিক্ষক ছিলেন বিক্রমপুরের রসিকচন্দ্র বন্দ্যোপাধ্যায়। ১৯০৭ থেকে ১৯৩৫ সাল পর্যন্ত বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ছিলেন সূর্যকুমার। পটিয়া বিদ্যালয়ে তার শিক্ষকতার সময়কে ‘সূর্যযুগ’ বলা হয়। এ যুগে বিদ্যালয়টির পঠন-পাঠনের মান ব্যাপকভাবে উন্নত হয়।

একবার সীমিত সংখ্যায় বিদ্যালয়ে ছাত্রীদের পড়াশোনা করার অনুমতি দেওয়া হয়েছিল তবে এখন কেবলমাত্র ছাত্ররাই ভর্তি হতে পারে।

বর্তমানে বিদ্যালয়ের ছাত্রসংখ্যা প্রায় এক হাজার দুইশ। আটজন এমপিওভুক্ত শিক্ষকসহ মোট শিক্ষক রয়েছেন ২১ জন। এই বিদ্যালয়ে পাঠাগারে ১০ হাজার বই রয়েছে। ef name="প্রথম-আলো" />

                                     

3. প্রধান শিক্ষকগণ

  • তুষার কান্তি দাশ ভারপ্রাপ্ত ২০০৬-২০১৬।
  • অাবুল কাশেম ১৯৭৬-১৯৯১।
  • নুরুল অাবছার ১৯৯২-২০০৬।
  • সূর্য কুমার সেন ১৯০৭-১৯৩৫।
  • মিজানুর রহমান ভারপ্রাপ্ত ২০১৬-২০১৮, নিয়মিত ২০১৮-বর্তমান।
  • মনিন্দ্র লাল কানুনগো ১৯৩৬-১৯৪৫।
  • রসিক চন্দ্র ব্যানার্জী ১৮৬৪-১৯০৬।
  • রমেশ চন্দ্র গুপ্ত ১৯৫০-১৯৭৪।
  • অাবদুর রশীদ ১৯৭৪-১৯৭৬।
  • প্রফুল্ল কুমার ভট্টাচার্যী ১৯৪৬-১৯৪৯।
  • দুর্গা কিংকর দত্ত ১৮৪৫-১৮৬৪।
                                     

4. কৃতি শিক্ষার্থী

এই প্রতিষ্ঠানের কৃতি শিক্ষার্থীর মধ্যে রয়েছেনঃ

  • বিপিন বিহারী নন্দী - কবি।
  • রায় বাহাদুর নবীন চন্দ্র দাশ - ম্যাজিস্ট্রেট।
  • রায় বাহাদুর শরৎচন্দ্র দাস - প্রত্নতত্ত্ববিদ।
  • প্রফেসর কামিনী কুমার দেব - গণিতবিদ এবং কলকাতা প্রেসিডেন্সী কলেজের অধ্যাপক।
  • যাত্রামোহন সেন - সমাজ সংস্কার আন্দোলনের পথিকৃৎ।
  • আহমদ শরীফ - ভাষাবিদ, খ্যাতনামা মনীষী এবং সাহিত্যিক।
  • আবদুল করিম সাহিত্যবিশারদ - বাংলা সাহিত্যের পুথি বিশেষজ্ঞ।
  • উকিল রায়হান আলী- চট্টগ্রাম জজ কোর্টের প্রতিষ্ঠালগ্ন আইনজীবি।
  • মনিন্দ্র লাল গুহ - বিপ্লবী, মাস্টারদা সূর্য সেনের সহযোগী।
  • শেখর শশাংক মোহন সেন - কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক।
  • ড: অাতাউল হাকিম - গণিতবিদ এবং চট্টগ্রামের প্রথম মুসলিম পিএইচডি ডিগ্রীধারী।
  • অন্নদাচরণ খাস্তগীর - চট্টগ্রামে নারীশিক্ষার অগ্রদূত।