Топ-100

ⓘ Free online encyclopedia. Did you know? page 452




                                               

জোশুয়া মার্শম্যান

জোশুয়া মার্শম্যান ছিলেন ভারতের অবিভক্ত বঙ্গ রাজ্যে একজন খ্রিষ্টান ধর্মপ্রচারক। বিভিন্ন সমাজ সংস্কারমূলক কাজ ও রাজা রামমোহন রায় প্রমুখ বিশিষ্ট ব্যক্তিত্বের সাথে বৈদগ্ধপূর্ণ বিতর্কে অংশগ্রহণকারী হিসেবে তার খ্যাতি আছে।

                                               

ডাফরিন রিপোর্ট

ডাফরিন রিপোর্ট উনিশ শতকের শেষার্ধে দাখিল করা একটি সরকারি প্রতিবেদন। বাংলার নিম্নশ্রেণীর গ্রামীণ জনগণের অবস্থা এই রিপোর্টে উঠে আসে। ভাইসরয় লর্ড ডাফরিনের নামানুসারে প্রতিবেদনের নাম ডাফরিন রিপোর্ট রাখা হয়। রিপোর্টের সরকারি শিরোনাম ছিল রিপোর্ট অন দ ...

                                               

ঢাকা অনুশীলন সমিতি

ঢাকা অনুশীলন সমিতি ছিল অনুশীলন সমিতির একটি শাখা। এটি তদনীন্তন পূর্ববঙ্গ ও আসাম প্রদেশের রাজধানী ঢাকা শহরে ১৯০৫ সালের নভেম্বর মাসে প্রতিষ্ঠিত হয়। পুলিনবিহারী দাশের নেতৃত্বে আশি জন সদস্য নিয়ে এই দল প্রতিষ্ঠিত হয়। এর পর পূর্ববঙ্গ প্রদেশে অতি দ্রু ...

                                               

দিহি পঞ্চান্নগ্রাম

১৭৫৮ খ্রিস্টাব্দে ব্রিটিশ ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানি মীর জাফরের সহায়তায় বাংলার শেষ স্বাধীন নবাব সিরাজউদ্দৌলাকে পরাস্ত করে তদানীন্তন কলিকাতা তথা বর্তমান স্বাধীন ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের রাজধানী কলকাতা শহরের ৫৫টি গ্রামের মালিকানা পায়। প্রাপ্ত ঐ ৫৫ট ...

                                               

দেবকোট

দেবকোট ছিল বাংলার এক প্রাচীন শহর এবং কোটিবর্ষ বিষয়ের প্রশাসনিক কেন্দ্র। কোটিবর্ষ বিষয় ছিল পুণ্ড্রবর্ধন ভুক্তির একটি অংশ; চন্দ্র, বর্মন ও সেনযুগে এই পুণ্ড্রবর্ধনের রাজধানী ছিল মহাস্থানগড়। কোটিবর্ষের সর্বপ্রথম উল্লেখ পাওয়া যায় বায়ুপুরাণ ও বৃহ ...

                                               

দ্বিতীয় মুবারাক আলী খান

দ্বিতীয় সৈয়দ মুবারক আলী খান, যিনি হুমায়ূন জাহ নামেই বেশি পরিচিত, ১৮১০ সালের ২৯ সেপ্টেম্বর মাসে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর পিতার নাম আহমদ আলী খান এবং মাতার নাম নাজিব আন-নিসা বেগম। তিনি ১৮২৪ সাল থেকে ১৮৩৮ সাল পর্যন্ত বাংলার নবাব ছিলেন। তাঁর সিংহাসনে স ...

                                               

দ্য রাইজ অব ইসলাম এণ্ড দ্য বেঙ্গল ফ্রন্টিয়ার

দ্য রাইজ অব ইসলাম এণ্ড দ্য বেঙ্গল ফ্রন্টিয়ার ইংরেজি ভাষায় লিখিত একটি গুরুত্বপূর্ণ ইতিহাস গ্রন্থ যাতে ভারতবর্ষের বঙ্গে ইসলামের আবির্ভাব এবং বিস্তার সম্পর্কে বিশদ আলোকপাত করা হয়েছে এবং, বিশেষ করে, এর কারণ তালাশ করা হয়েছে। এই গ্রন্থটির রচয়িতা প ...

                                               

নওবাহার-ই-মুর্শিদকুলী খানি

নওবাহার-ই-মুর্শিদকুলী খানি আজাদ-আল হোসায়নি রচিত একটি ইতিহাস গ্রন্থ। ইরান থেকে আগত এই পণ্ডিত সম্ভবত ১৭২৯ খ্রিষ্টাব্দে এ গ্রন্থটি রচনা করেন। মূলত এ গ্রন্থটি একটি পুস্তিকা যা স্যার যদুনাথ সরকার ইংরেজিতে অনুদিত করে মাত্র ৮ পৃষ্ঠায় মুদ্রণ করেছিলেন। ...

                                               

নদিয়া রাজপরিবার

নদিয়া রাজপরিবার বা নবদ্বীপ রাজবংশ ভট্টনারায়ণ নামক ব্রাহ্মণের বংশজাত, যিনি বাংলার রাজা আদিশূর কর্তৃক বিশুদ্ধতার আচরণে নির্বাচিত হয়েছিলেন। নদিয়া রাজপরিবার বাংলার অন্যতম হিন্দু রাজপরিবার, যারা ৩৫ প্রজন্ম ধরে এখানে বসবাস করছেন। বাংলায় ব্রিটিশ রা ...

                                               

নবকৃষ্ণ দেব

নবকৃষ্ণ দেব যিনি রাজা নবকৃষ্ণ দেব নামে বেশি পরিচিত ও শোভাবাজার রাজপরিবারের প্রতিষ্ঠাতা। ১৭৫৭ সালে কলকাতায় নতুন তৈরি শোভাবাজার রাজবাড়িতে তিনি ও রবার্ট ক্লাইভ প্রথম দুর্গাপূজা শুরু করেন যা কলকাতা শহরের সবথেকে পুরোনো দুর্গাপূজা। অনেক শিল্পী ও প্রজ ...

                                               

নবাব সৈয়দ শামসুল হুদা

সৈয়দ শামসুল হুদা কে.সি.আই.ই একজন ব্রিটিশ ভারতীয় মুসলিম রাজনৈতিক নেতা ছিলেন। তিনি ব্রাহ্মণবাড়ীয়া জেলা, নাসিরনগর উপজেলার অন্তর্গত গোকর্ণ গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। বর্তমানে ত্রিতল বিশিষ্ট ভবনটি গোকর্ণ নবাব বাড়ি কমপ্লেক্স নামে পরিচিত। পূর্বে ব্রাহ্ ...

                                               

নাটোরের জমিদারগণ

নাটোরের জমিদারগণ প্রভাবশালী আরামদায়ক বাংলা জমিদার ছিল, যারা তৎকালীন বাংলাদেশের নাটোর জেলার বৃহত্তর এস্টেট মালিকানাধীন। তারা উন্নয়ন ও পৃষ্ঠপোষকতার মাধ্যমে পূর্ব বাংলার উন্নয়নে এবং পরবর্তীকালে বাংলাদেশে অবদান রাখে। তাদের উন্নয়নের মাধ্যমে বিভিন্ ...

                                               

পলাশী দিবস

১৭৫৭ সালের ২৩ জুন পলাশীর আমবাগানের যুদ্ধে স্বাধীন বাংলার নবাব ব্রিটিশ ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির কাছে পরাজিত হয়। ফলে প্রায় ২০০ বছরের জন্য বাংলা স্বাধীনতা হারায়। প্রতি বছর সে জন্য ২৩ জুন পলাশী দিবস হিসাবে পালিত হয়। ১৭৫৭ সালের এইদিনে নদিয়া জেলার ...

                                               

পলাশী মনুমেন্ট

পলাশী মনুমেন্ট বা পলাশী স্মৃতিস্তম্ভ হল ঐতিহাসিক পলাশীর যুদ্ধর স্মৃতিতে প্রোথিত একটি স্মারকস্তম্ভ যা পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের নদীয়া জেলায় পলাশীতে অবস্থিত। বর্তমানে এই স্মারকটি ভারতীয় পুরাতত্ব সর্বেক্ষণের অধীন। ২০০৭ সালে যুদ্ধের ২৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষ ...

                                               

পশ্চিমবঙ্গের ইতিহাস

স্বাধীনোত্তর পশ্চিমবঙ্গের ইতিহাস সূচিত হয় ১৯৪৭ সালে। এই বছরই অবিভক্ত ব্রিটিশ বাংলা প্রদেশ দ্বিখণ্ডিত হয়ে ভারত ও পাকিস্তানভুক্ত হয়। পাকিস্তানের প্রদেশটির নাম হয় পূর্ব বাংলা ও ভারতের অংশটি পশ্চিমবঙ্গ নাম ধারণ করে। ১৯৫০ সালে কোচবিহার রাজ্যটি পশ্ ...

                                               

পার্বত্য চট্টগ্রাম বিধিমালা, ১৯০০

পার্বত্য চট্টগ্রাম রেগুলেশন, ১৯০০ যা পার্বত্য চট্টগ্রাম ম্যানুয়াল নামেই অধিক পরিচিত। এটি তৎকালীন ব্রিটিশ ভারত সরকার কর্তৃক প্রণীত একটি আইন যা মূলত বর্তমান বাংলাদেশের দক্ষিণ-পূর্ব অঞ্চলে অবস্থিত পার্বত্য চট্টগ্রামকে কীভাবে পরিচালনা করতে হবে সেই স ...

                                               

পীর গোরাচাঁদ

পীর গোরাচাঁদ বা হজরত পীর গোরাচাঁদ বা গোরাই পীর হলেন মধ্যযুগে ইসলাম ধর্ম প্রচারের উদ্দেশ্যে সৌদি আরব থেকে বাংলায় আগত এক সুফি সন্ত। চতুর্দশ শতকের গোড়ার দিকে গুরু শাহজালাল-এর নির্দেশে আরও একুশজন পীরভাইকে সঙ্গে নিয়ে দক্ষিণ বাংলার সাবেক চব্বিশ পরগণ ...

                                               

পুঠিয়া রাজপরিবার

পুঠিয়া রাজ পরিবার সপ্তদশ শতাব্দীর গোড়ার দিকে মুঘলরা তৈরি করেছিলেন এবং এটি বাংলার প্রাচীনতম সামন্তবাদী জনপদগুলির মধ্যে একটি ছিল। নীলাম্বর নামে একজন প্রভু সম্রাট জাহাঙ্গীরের কাছ থেকে রাজা উপাধি গ্রহণ করেছিলেন । ১৭৪৪ সালে, অঞ্চলটি রাজা নীলাম্বরের ...

                                               

পুণ্ড্র রাজ্য

এই নিবন্ধটি ভারতীয় মহাকাব্যে উল্লিখিত পৌণ্ড্র রাজ্য সম্পর্কে। ঐতিহাসিক রাজ্যটি সম্পর্কে জানতে দেখুন পুণ্ড্রবর্ধন। পুণ্ড্র ভারতীয় মহাকাব্যগুলিতে বর্ণিত একটি পৌরাণিক রাজ্যের নাম। এই রাজ্যটি পৌণ্ড্র, পৌণ্ড্রয় বা পুর্ণিয়া নামেও পরিচিত। বর্তমান ভা ...

                                               

প্রতাপাদিত্য

প্রতাপাদিত্য প্রাচীন যশোহর সাম্রাজ্যের নৃপতি, যিনি তৎকালীন মুঘল রাজত্বের অধীন এক সামন্ত রাজ্যের রাজা থেকে সর্বপ্রথম এক স্বাধীন রাজ্যের নৃপতি হিসাবে আত্ম প্রকাশ করেন। তিনি বারো ভুঁইয়ার অন্যতম প্রতাপশালী জমিদার ছিলেন। তিনি মুঘলদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ক ...

                                               

প্রথম আলাউদ্দিন ফিরোজ শাহ

প্রথম আলাউদ্দিন ফিরোজ শাহ ছিলেন সুলতান শিহাবউদ্দিন বায়েজিদ শাহর পুত্র ও উত্তরসুরি। সুলতান হলেও তার ক্ষমতা নামেমাত্র ছিল। দিনাজপুরের জমিদার রাজা গণেশ এসময় মূল ক্ষমতার অধিকারী ছিলেন। কয়েকমাস শাসন করাপর গণেশ তাকে ক্ষমতাচ্যুত করেন। ৮১৭ হিজরিতে মুয ...

                                               

প্রথম মহীপাল

প্রথম মহীপাল ছিলেন পাল সাম্রাজ্যের একাদশতম সম্রাট ও পালাধিপতি দ্বিতীয় বিগ্রহপালের পুত্র। তিনি তার রাজত্বকালে পিতার হৃতরাজ্য পুনর্বিজয় করে বিলুপ্ত সাম্রাজ্যের বৃহদাংশ উদ্ধার করেছিলেন। বাংলার লোকশ্রুতিতে মহীপালের কীর্তি গৌরবান্বিত হয়ে আছে। তিনি ...

                                               

প্রাচীন সাহিত্যে রাঢ়

প্রাচীন সাহিত্যে রাঢ় সংস্কৃত ভাষায় রচিত ভারতের প্রাচীন সাহিত্য রাঢ় অঞ্চলের একাধিক মনোজ্ঞ বিবরণ পাওয়া যায়। পশ্চিমবঙ্গের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে বিস্তৃত রাঢ় অঞ্চলের ঐতিহাসিক খ্যাতি সুপ্রসিদ্ধ। মহাভারত থেকে বৌদ্ধ, জৈন ও পরবর্তীকালে রচিত হিন্দু ধর্ ...

                                               

বক্সারের যুদ্ধ

বক্সারের যুদ্ধ ব্রিটিশ ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির সাথে সম্মিলিত ভাবে মীর কাশিম-এর মধ্যে সংঘটিত হয়েছিল। ব্রিটিশ ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির জয়ের ফলে ভারতবর্ষে ইংরেজ শাসন প্রতিষ্ঠার পথ সূচিত হয়।

                                               

বখতিয়ার খলজীর তিব্বত অভিযান

বখতিয়ার খলজী ছিলেন বাংলার দিল্লি সুলতানাতের একজন মুসলিম সুলতান। তিনি ত্রয়োদশ শতাব্দীতে তিব্বত আক্রমণ করার জন্য একটি অভিযান শুরু করেছিলেন। তিনি তিব্বত ও ভারতের মধ্যে লাভজনক বাণিজ্য নিয়ন্ত্রণের আকাঙ্ক্ষায় অনুপ্রাণিত হয়েছিলেন। চুম্বি উপত্যকার এ ...

                                               

বঙ্গীয় আইনসভা

বঙ্গীয় আইনসভা ব্রিটিশ ভারতের বৃহত্তম আইনসভা ছিল, বাংলার বিধানসভার নিম্নকক্ষ হিসেবে এটি ব্যবহৃত হতো। এটি ভারত সরকার আইন ১৯৩৫ এর আওতায় প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল। অবিভক্ত বাংলার চূড়ান্ত দশকে এই আইনসভাটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছিল। এর নেতৃত্বে ছিলেন ...

                                               

বজ্জভূমি

বজ্জভূমি ছিল প্রাচীন রাঢ় অঞ্চলের একটি অংশ। অধুনা ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের বীরভূম জেলার রুক্ষ পশ্চিমাঞ্চল অতীতে বজ্জভূমি নামে পরিচিত ছিল। আচারাঙ্গ সূত্র নামে একটি প্রাচীন জৈন ধর্মগ্রন্থে রাঢ় অঞ্চলের উল্লেখ পাওয়া যায়। সর্বশেষ ২৪শ তীর্থঙ্কর মহা ...

                                               

বরিশাল ষড়যন্ত্র মামলা

১৯৩১ সালের বরিশাল ষড়যন্ত্র মামলায় ব্রিটিশ ঔপনিবেশিক কর্তৃপক্ষের দ্বারা অভিযুক্ত ৪৪ বাঙ্গালির বিরুদ্ধে বিচার হয়েছিল যারা রাজের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ চালানোর পরিকল্পনা করেছিলেন বলে অভিযোগ করা হয়েছিল। এমনিতেই, এটি স্বাধীনতার বৃহত্তর আন্দোলনের অংশ ছিল ...

                                               

বর্গি

বর্গি অষ্টাদশ শতাব্দীর লুটতরাজপ্রিয় অশ্বারোহী মারাঠা সৈন্যদলের নাম। ১৭৪১ থেকে ১৭৫১ সাল পর্যন্ত দশ বছর ধরে বাংলার পশ্চিম সীমান্তবর্তী অঞ্চলগুলিতে নিয়মিতভাবে লুটতরাজ চালাত বর্গিরা। বর্গিহানা এই সময় একপ্রকার বাৎসরিক ঘটনায় পরিণত হয়েছিল।

                                               

বর্ধমানের যুদ্ধ (১৭৪২)

বর্ধমানের প্রথম যুদ্ধ ১৭৪২ সালের এপ্রিলে বর্তমান ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের বর্ধমানে মারাঠা বাহিনী এবং বাংলার নবাবের বাহিনীর মধ্যে সংঘটিত হয়। এ যুদ্ধের সময় মারাঠারা নবাবের বাহিনীকে সম্পূর্ণরূপে অবরুদ্ধ করে ফেলেছিল। কিন্তু তীব্র যুদ্ধেপর নবাবের ব ...

                                               

বর্ধমানের যুদ্ধ (১৭৪৭)

বর্ধমানের দ্বিতীয় যুদ্ধ ১৭৪৭ সালের মার্চে বর্ধমানে মারাঠা বাহিনী এবং বাংলার নবাবের বাহিনীর মধ্যে সংঘটিত হয়। তীব্র যুদ্ধেপর নবাবের বাহিনীর নিকট মারাঠারা সম্পূর্ণরূপে পরাজিত হয়।

                                               

বল্লাল সেন

বল্লাল সেন ছিলেন বঙ্গের সেন রাজবংশের দ্বিতীয় রাজা। ১১৬০ থেকে ১১৭৯ সাল পর্যন্ত তিনি সেন বংশের রাজত্ব করেন। কুলজি গ্রন্থসমূহ থেকে জানা যায়, তিনি ছিলেন সেন রাজবংশের প্রতিষ্ঠাতা বিজয় সেনের পুত্র এবং উত্তরসূরি। বল্লাল সেন পশ্চিম চালুক্য সাম্রাজ্যের ...

                                               

বাংলা ও মুর্শিদাবাদের নবাবগণ

বাংলার নবাবগণ ছিলেন সম্পূর্ণ রূপ বাংলা-বিহার-উড়িষ্যার নওয়াবে নিজাম। মুঘল আমলে যারা সুবাহ বাংলার প্রাদেশিক শাসক ছিলেন। ১৭১৭ থেকে ১৭৫৭ সাল পর্যন্ত তারা সার্বভৌম বাংলার প্রধান হিসেবে এই অঞ্চল শাসন করেছেন। পদটি মুঘল আমলে পুরুষানুক্রমিকভাবে নাজিম ও ...

                                               

বাংলা সালতানাত–দিল্লি সালতানাত যুদ্ধ

বাংলায় দিল্লির আক্রমণ দ্বারা ১৩৫৩ সালের নভেম্বর থেকে ১৩৫৪ সালের সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বাংলার বিরুদ্ধে পরিচালিত দিল্লি সালতানাতের আক্রমণকে বুঝানো হয়। ১৩৫৩ সালের নভেম্বরে দিল্লির সুলতান ফিরোজ শাহ তুঘলক এক বিরাট সৈন্যবাহিনীসহ বাংলা আক্রমণ করেন। কিন্ত ...

                                               

বাংলায় পর্তুগিজ জাতি

পর্তুগিজেরা বাংলায় প্রথম আগমন করে ১৫১৬ খ্রিষ্টাব্দে। কিন্তু শের শাহ তাদের বিতাড়িত করেন। পরে মুঘল শাসন পুনঃপ্রতিষ্ঠাপর তারা আবার ফিরে আসে এবং হুগলী বন্দর প্রতিষ্ঠা করে, যা কালক্রমে বাংলার তৎকালীন শ্রেষ্ঠ বন্দরে পরিণত হয়। ১৬শ শতাব্দীর দ্বিতীয়ার ...

                                               

বাংলায় মারাঠা আক্রমণ (১৭৪২)

বাংলায় মারাঠা আক্রমণ দ্বারা ১৭৪২ সালে বাংলার ভূখণ্ডে পরিচালিত মারাঠা আক্রমণকে বোঝানো হয়। ১৭৪২ সালে মারাঠা নেতা প্রথম রঘুজী ভোঁসলের প্রধানমন্ত্রী ভাস্কর পণ্ডিতের নেতৃত্বে একটি বিরাট সৈন্যবাহিনী বাংলা আক্রমণ করে এবং সমগ্র বাংলা জুড়ে লুটপাট চালায ...

                                               

বাংলায় মারাঠা আক্রমণ (১৭৪৩)

বাংলায় মারাঠা আক্রমণ বলতে ১৭৪৩ সালে মারাঠা সাম্রাজ্যের অন্তর্গত নাগপুর রাজ্যের মহারাজা রঘুজী ভোঁসলে কর্তৃক বাংলায় পরিচালিত আক্রমণকে বোঝায়। ১৭৪৩ সালের মার্চে রঘুজী বাংলা আক্রমণ করেন, কিন্তু মুঘল সম্রাটের সঙ্গে স্বাক্ষরিত এক চুক্তি অনুযায়ী আরেক ...

                                               

বাংলায় মারাঠা আক্রমণ (১৭৪৪)

বাংলায় মারাঠা আক্রমণ বলতে ১৭৪৪ সালে মারাঠা সাম্রাজ্যের অন্তর্গত নাগপুর রাজ্যের মহারাজা প্রথম রঘুজী ভোঁসলে কর্তৃক বাংলায় পরিচালিত আক্রমণকে বোঝায়। রঘুজীর প্রধানমন্ত্রী ভাস্কর পণ্ডিত এই অভিযানে মারাঠাদের নেতৃত্ব দেন। এ অভিযানকালে মারাঠারা বাংলার ...

                                               

বাংলায় মারাঠা আক্রমণ (১৭৪৯–১৭৫১)

বাংলায় মারাঠা আক্রমণ বলতে মারাঠা সাম্রাজ্য কর্তৃক ১৭৪৯ সাল থেকে ১৭৫১ সাল পর্যন্ত বাংলায় পরিচালিত আক্রমণকে বোঝানো হয়। তীব্র সংঘর্ষেপর বাংলার নবাব আলীবর্দী খান মারাঠাদেরকে বাংলা থেকে বিতাড়িত করতে সক্ষম হন, কিন্তু উড়িষ্যা মারাঠাদের দখলে থেকে যা ...

                                               

বাংলায় মারাঠা আক্রমণের সময় যুদ্ধাপরাধ

বাংলায় মারাঠা আক্রমণের সময় যুদ্ধাপরাধ বলতে ১৭৪১ থেকে ১৭৫১ সালে বাংলায় মারাঠা আক্রমণ চলাকালে মারাঠা বাহিনী কর্তৃক বাংলায় সংঘটিত যুদ্ধাপরাধসমূহকে বোঝায়। এসব অপরাধের মধ্যে ছিল গণহত্যা, লুটতরাজ, অগ্নিসংযোগ এবং ধর্ষণ।

                                               

বাংলার ইতিহাস

বাংলার ইতিহাস বলতে অধুনা বাংলাদেশ, ভারতের পশ্চিমবঙ্গ, ত্রিপুরা এবং আসামের বরাক উপত্যকার বিগত চার সহস্রাব্দের ইতিহাসকে বোঝায়।গঙ্গা ও ব্রহ্মপুত্র নদ এক অর্থে বাংলাকে ভারতের মূল ভূখণ্ড থেকে বিচ্ছিন্ন করে রেখেছিল। কিন্তু তা সত্ত্বেও ভারতের ইতিহাসে ব ...

                                               

বাংলার মসলিন বাণিজ্য

মসলিন বিশেষ এক প্রকার তুলার আঁশ থেকে প্রস্তুতকৃত সূতা দিয়ে বয়ন করা এক প্রকারের অতি সূক্ষ্ম কাপড়বিশেষ। ঢাকা ও বাংলাদেশ এলাকায় এই বস্ত্র তৈরী হত এবং ইউরোপ ও মধ্যপ্রাচ্যে রপ্তানি করা হত।

                                               

বাহারিস্তান-ই-গায়বী

বাহারিস্তান-ই-গায়বী মির্জা নাথান রচিত একটি প্রধান ঐতিহাসিক নথি যা মুঘল সম্রাট জাহাঙ্গীরের অধিনস্ত বঙ্গ, কুচ বিহার, আসাম এবং বিহারের ইতিহাস লেখার ক্ষেত্রে প্রাথমিক উৎস হিসেবে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এটি মুঘল সাম্রাজ্যের অন্যান্য ইতিহাসের মত নয় যা, ...

                                               

বিহারের দুর্ভিক্ষ ১৮৭৩-৭৪

১৮৭৩-৭৪ এর বিহারের দুর্ভিক্ষ যা ১৮৭৩-৭৪ এর বাংলার দুর্ভিক্ষ নামেও পরিচিত। ব্রিটিশ ভারতের বিহার প্রদেশ, বাংলা ও তার পার্শ্ববর্তী প্রদেশগুলি বিশেষত উত্তর-পশ্চিম প্রদেশ এবং ওউধ অঞ্চল খরাজনিত এই দুর্ভিক্ষের কবলে পড়ে। প্রায় ১,৪০,০০০ বর্গকিলোমিটার অঞ ...

                                               

বেতড়

বেতর ছিল বাংলার অন্যতম প্রধান বাণিজ্যকেন্দ্র। অধুনা ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের হাওড়া জেলার শিবপুর-সংলগ্ন অঞ্চল অতীতে বেতর নামে পরিচিত ছিল। আধুনিক কলকাতা শহর গড়ে উঠেছিল মূলত সুতানুটি, গোবিন্দপুর ও কলিকাতা গ্রাম তিনটিকে কেন্দ্র করে। কিন্তু এই তিনট ...

                                               

ব্যাঙ্ক অফ ক্যালকাটা

ব্যাঙ্ক অফ ক্যালকাটা ছিল ভারতের প্রথম ব্যাঙ্ক। প্রধানত টিপু সুলতান ও মারাঠাদের বিরুদ্ধে যুদ্ধে জেনারেল ওয়েলেসলিকে অর্থসাহায্যের জন্যই ১৮০৬ সালের ২ জুন এই ব্যাঙ্ক প্রতিষ্ঠিত হয়। ১৮০৯ সালের ২ জানুয়ারি এই ব্যাঙ্কের নাম পালটে রাখা হয় "ব্যাঙ্ক অফ ...

                                               

ব্রিটিশ ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানি

ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানি ভারতীয় উপমহাদেশে বাণিজ্য করার জন্য ষোড়শ শতাব্দীতে প্রতিষ্ঠিত একটি জয়েন্ট‌-স্টক কোম্পানি। এর সরকারি নাম "ব্রিটিশ ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানি"। ১৬০০ সালের ৩১ ডিসেম্বর রাণী প্রথম এলিজাবেথ এই কোম্পানিকে ভারতীয় উপমহাদেশে বাণিজ্য ...

                                               

ভবশঙ্করী

ভবশঙ্করী ছিলেন একজন বাঙালী বীর রমনী ও তদানীন্তন ভুরশুট রাজ্যের রানী। ভুরশুট ছিল অধুনা ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের হাওড়া ও হুগলি জেলার অন্তর্গত একটি প্রাচীন ও মধ্যযুগীয় রাজ্য।

                                               

ভাওয়াল সন্ন্যাসী মামলা

ভাওয়াল সন্ন্যাসী মামলা বিংশ শতকের প্রথম ভাগের একটি বিখ্যাত মামলা। অবিভক্ত ভারতবর্ষের বাংলা প্রদেশের ভাওয়াল রাজবাড়ির কর্তৃত্ব নিয়ে এই মামলার মূল প্রতিপাদ্য ছিলো, মামলার বাদীর পরিচয়। বাদী নিজেকে ভাওয়ালের রাজকুমার রমেন্দ্রনারায়ণ রায় হিসাবে দ ...

                                               

ভাগলপুরের যুদ্ধ

ভাগলপুরের যুদ্ধ ১৭৪৮ সালের মার্চে বিহারের ভাগলপুরে বাংলার নবাব আলীবর্দী খানের সৈন্যবাহিনী এবং মীর হাবিবের নেতৃত্বাধীন মারাঠা বাহিনীর মধ্যে সংঘটিত হয়। যুদ্ধে মারাঠারা পরাজিত হয়।